Hyper Teem

চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি

হ্যালো বন্ধুরা। আবারো তোমাদের জন্য নিয়ে আসলাম দারুন একটি পোস্ট। তোমাদের অনেকেরই হয়তো ইন্টার লেভেল শেষ করে ফেলেছ। এখন বিভিন্ন ভার্সিটি ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রিপারেশন নিচ্ছ। তাই আজকে আমি তোমাদের জন্য চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি কিছু সাজেশন নিয়ে আসলাম। তাহলে চলো শুরু করি।

চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি

এই ইউনিভার্সিটি একে অনেকে চিটাগাং ইউনিভার্সিটি নামে চেনে।বাংলাদেশের সব থেকে বড় ক্যাম্পাস হচ্ছে এই চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাস। সবুজে ঘেরা চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি দেখতে খুবই সুন্দর। চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি হাজার 966 সালে স্থাপন করা হয়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের তৃতীয় এবং সবথেকে বড় বিশ্ববিদ্যালয়। আপনারা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ভবন থেকে অন্য ভবনে যেতে যেতে হাঁপিয়ে যাবে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে 27 389 স্টুডেন্ট রয়েছে। এবং চট্টগ্রাম ভার্সিটিতে 857 জন শিক্ষক রয়েছেন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি

7 সেপ্টেম্বর থেকে 30 সেপ্টেম্বর 11:59 পর্যন্ত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির জন্য ফরম ফিলাপ চালু ছিল। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবার ফরম তুলেছেন মোট 37000 স্টুডেন্ট। এই ভার্সিটিতে যাদের যোগ্যতা একমাত্র তারাই ভর্তি হতে পারে। অর্থাৎ এবার সিলেটে জিপিএ মার্কেটে গুরুত্ব দেওয়া হয় না বেশি। নিজের যোগ্যতায় যতটুকু ভালো করতে পারবে এখানে তাঁতি তার দক্ষতা প্রমাণিত হবে।

চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি ইউনিট

সকল ভার্সিটির মত চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটিতে সাইন্স কমার্স আর্টস এই তিন ইউনিটের পরীক্ষা হয়ে থাকে।

  • A (বিজ্ঞান)
  • B (কমার্স)
  • C (আর্টস)

এই তিন ইউনিটের পরীক্ষা চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি তে হয়ে থাকে।

বিজ্ঞান বিভাগের জন্য কিভাবে পড়বে

বিজ্ঞান বিষয়ক টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ আমাদের জীবনের জন্য। জীবনের সকল কাজে আমরা বিজ্ঞান ব্যবহার করে থাকি। তাই বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হওয়া একটু কষ্ট আছে।তবে কিছু সিস্টেম অনুযায়ী পড়লে চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটি বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হওয়া সম্ভব। বিজ্ঞান বিভাগে সব থেকে সহজ একটা জিনিস হচ্ছে, তোমাকে সব করতে হয়না। ইম্পর্টেন্ট জিনিসগুলো পড়লেই 9০% কোশ্চেন কমন পড়ে যায়।

বিজ্ঞান বিভাগে যে সকল সাবজেক্ট গুলো থাকছে

  • পদার্থবিজ্ঞান
  • উচ্চতর গণিত
  • রসায়ন
  • জীববিজ্ঞান
  • বাংলা
  • ইংরেজি

মোট ছটা সাবজেক্টে উপরে পরীক্ষা হবে। কিন্তু এই ছয়টা থেকে শিক্ষার্থীদের অবশ্যই বাংলার ইংলিশে পাস মার্ক তুলতে হবে। বাংলাতে 10 নম্বরে পরীক্ষা হবে। তার মধ্যে দুই পেলে পাস। আর ইংরেজি 15 নম্বরে পরীক্ষা হবে। তার থেকে 4 পেলে পাস। এই বাংলা ও ইংরেজি আলাদাভাবে পাস করতে হয়। যদি বাংলা ইংলিশ থেকে একটা ফেল আসে তাহলে তুমি মেরিট লিস্টে আসবা না।

যেভাবে পড়লে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হওয়া যাবে

বন্ধুরা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হওয়ার জন্য এত বেশি পড়তে হয় না। কিছু কিছু টপিক বাছাই করে পড়লি ভর্তি হওয়া যায়।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় তোমরা যে সাইটগুলো আনসার করবে সেগুলো হল পদার্থবিজ্ঞান রসায়ন জীববিজ্ঞান বাংলা এবং ইংলিশ। এখন তোমরা ভাবতেছ আমি হায়ার ম্যাথ এর কথা কেন বললাম না।চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় উচ্চতর গণিত বিভাগের আন্ডারে সাবজেক্ট কম। আর্য বিজ্ঞান বিভাগে আন্ডারে সাবজেক্ট প্রায় 10 থেকে 12 টি। সে ক্ষেত্রে তোমরা যদি উচ্চতর গণিত আন্সার না করে জীববিজ্ঞান আনসার করো সে ক্ষেত্রে সাবজেক্ট পাওয়ার সুযোগ বেড়ে যায়।

আর তোমরা চট্টগ্রাম ইউনিভার্সিটির জন্য ইংরেজিতে গ্রামার গুলো পড়বা। তাহলে দেখবে 8 দশটা কমেন্ট পড়ে গেছে।

বাংলার ক্ষেত্রে ব্যাকরণ এর নিয়ম গুলো পড়বা। যেমন শুদ্ধ বানান কারক-বিভক্তি, সন্ধি বিচ্ছেদ এগুলো পড়লি মোটামুটি তোমার 6-7 টা কমেন্ট পড়ে যাবে।

তোমরা বেশী বেশী বিগত বছরের কোশ্চেন গুলো সমাধান করবে। তাহলে দেখা যায় যে আগের বছর অনেকগুলো কোশ্চেন এই আসে। সে ক্ষেত্রে তোমরা ইজিলি কোশ্চেন গুলো দাগিয়ে ফেলতে পারবে এবং তোমাদের সময় বাঁচবে।


তো বন্ধুরা আজকের পোস্টটি কী রকম লাগলো। এরকম আরো ভালো ভালো পোস্ট পেতে আমাদের সাথে থাকুন। যদি ভালো লাগে থাকে তাহলে লাইক কমেন্ট করতে ভুলবে না। আর বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে আরও কিছু জানতে চান সেটা কমেন্টে জানিয়ে দেবেন। আমি পরবর্তীতে সেটা নিয়ে আরও পোস্ট করব

ধন্যবাদ সবাইকে।

Share

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *